যারা সত্যিই জীবনে অনেক বড় কিছু করতে চান তাদের জন্য নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করার উপায় জানাটা সবচেয়ে জরুরী। মানুষের বড় হওয়ার পথে সবচেয়ে বড় বাধা যেটা সেটা হচ্ছে তার মন। আবার তার এই মনে সফল হওয়ার জন্য সবচেয়ে বড় অস্ত্র হিসেবে কাজ করে। যে ব্যক্তি তার মনের ইচ্ছা কে নিজের প্রয়োজন মত নিয়ন্ত্রণ করতে পারে সেই সঠিক সময়ে সঠিক কাজটি করতে পারে।

মনের দ্বারা চালিত না হয়ে নিজেকে নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রাখতে পারা একজন মানুষের সবচেয়ে বড় দক্ষতা। দুজন ছাত্রের কথা ধরতে পারি। ধরি কালকে তাদের পরীক্ষা। আজকে টিভিতে তাদের দুজনের প্রিয় একটি নাটক সম্প্রচার হচ্ছে। তবে পরীক্ষায় যদি ভালো করতে হয় তবে তাদের উচিত হবে নাটক দেখা বাদ দিয়ে সেই সময়টা পড়াশুনার কাজে লাগানো যাবে পরের দিনের পরীক্ষাটা ভালো হয়। তাই নয় কি?

এখন এই দুইজন ছাত্রের একজন যদি নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করে নাটক দেখা বাদ দিয়ে পড়াশোনা করে আর আরেকজন যদি নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে না পারে এবং পড়াশোনা না করে সে সময়টায় নাটক দেখে, তবে পরের দিনের পরীক্ষায় কে ভালো করবে? নিশ্চয় প্রথম ছাত্র টি ভালো করবে। অথচ তাদের দুজনেরই লক্ষ্য ছিল পরীক্ষায় ভালো করা। একজন নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করে লক্ষ্য অর্জনের জন্য সঠিক সময় সঠিক কাজটি করেছে কিন্তু আরেকজন করে নাই। শুধু পড়াশোনাই নয় যে কোন বিষয়েই মানুষ যদি নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করে সঠিক সময় সঠিক কাজটি করতে পারে তবে সে জীবনে অনেক বেশি সফল হতে পারবে ইন শা আল্লাহ।

আসলে মানুষের লক্ষ্য পূরণ না হওয়ার জন্য সবচেয়ে বড় একটা কারণ হল সঠিক সময়ে সঠিক কাজটি করতে সক্ষম না হওয়া। এই না পারার সবচেয়ে বড় কারণ হচ্ছে নিজের উপর কন্ট্রোল না থাকা। কাজের সময় মজার কোন বিষয় বিসর্জন দেয়ার মতো আত্মনিয়ন্ত্রণের শক্তি আপনার থাকতেই হবে নয়তো আপনাকে পিছিয়ে পড়তে হবে। তবে সত্য বলতে সব সময় নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করে রাখতে পারা সহজ বিষয় নয়। কারণ সব সময়ই আমাদের সামনে বিভিন্ন ধরনের বিনোদন এবং মজার মজার বিষয় আসতে থাকে যেগুলো এড়িয়ে সত্যিকারের কাজ করাটা অনেক সময়ই খুব কঠিন হয়ে যায়। এটা কঠিন কাজ বলেই পৃথিবীর মাত্র ২০% মানুষ বাকি ৮০% মানুষের উপরে অতিরিক্ত করে। কারণ অধিকাংশ মানুষই নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না।

বিখ্যাত সেলফ ডেভেলপমেন্ট ট্রেইনার ও বেস্ট সেলিং লেখক তার পাওয়ার অফ সেলফ ডিসিপ্লিন বইটিতে লিখেছেন পৃথিবীর বিভাগ মানুষ বাকি ৮০ পার্সেন্ট এর সমান টাকার মালিক। পৃথিবীর 80 ভাগ মানুষ বাকৃবির ভাগ মানুষের জন্য কাজ করে থাকে। এর কারণ হিসেবে অনেকে পুঁজিবাদ বা সামাজিক অবস্থা ইত্যাদি কে দায়ী করে থাকেন। কিন্তু এ ২০ পার্সেন্ট মানুষের একটা বড় অংশ সম্পূর্ণ নিজের চেষ্টা ও পরিশ্রমের বড় হয়েছেন। তাদের জন্ম হয়েছিল খুবই সাধারণ অবস্থায়। বলার মত কোন পরিচয় কিংবা কোনো সম্পদ নিয়ে তারা শুরু করেন নাই। বিজ্ঞানী ও উদ্যোক্তা টমাস আলভা এডিসন বলেন ভারতীয় ধন কুবের ধীরুভাই আম্বানি অথবা বাংলাদেশের আকিজ শেখ এর মত মানুষরা এমন অবস্থা থেকে এমন জায়গায় উঠে এসেছে যা দেখলে কেউ বিশ্বাস করতে চাইবে না।

তাদের এই অবাক করা সাফল্যের পেছনে মেধা ও পরিশ্রমের পাশাপাশি আত্মনিয়ন্ত্রণে একটা বড় ভূমিকা অবশ্যই ছিল। ক্লাসের সেরা ছাত্র থেকে শুরু করে যে কোন ক্ষেত্রে সেরা মানুষগুলোর ক্ষেত্রে এই গুণটি দেখা যায়। একজন ব্যক্তি যত মেধাবী ও সুযোগের অধিকারী হোক না কেন সে যদি সময় মত নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করে সঠিক কাজটি করতে না পারে তবে সে কখনোই সফল হতে পারবে না। নিজেকে নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রাখতে পারেই হচ্ছে যে কোনো ক্ষেত্রে সাফল্য পাওয়ার অন্যতম একটা শর্ত। এই বোনটি অর্জন করে আপনিও আপনার মেধা সমর্থক পুরোপুরি কাজে লাগিয়ে অনেক বেশি পরিমাণে সাফল্য পেতে পারেন সেই কারণে আমরা আজকে আলোচনা করব নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করার পাঁচটি উপায় নিয়ে।

যদিও এই উপায় গুলো মেনে চলা খুব একটা সহজ নয়। কিন্তু কিছু যদি মেনে চলতে পারে তবে খুব তাড়াতাড়ি আপনার সাফল্যের মাত্রা বাড়তে শুরু করবে। তাহলে জেনে নি:

Newsletter