Hello,

Sign up to join our community!

Welcome Back,

Please sign in to your account!

Forgot Password,

Lost your password? Please enter your email address. You will receive a link and will create a new password via email.

Sorry, you do not have permission to ask a question, You must login to ask a question. Please subscribe to paid membership

Please briefly explain why you feel this question should be reported.

Please briefly explain why you feel this answer should be reported.

Please briefly explain why you feel this user should be reported.

প্রশ্ন করুন সমাধান নিন

আপনার প্রয়োজনীয় প্রশ্নের বেস্ট সমাধান পেতে পন্ডিত মশাই ডট কমে প্রশ্নটি করুন । আমাদের মেন্টরগণ আপনাদের প্রশ্নের বেস্ট উত্তর দিয়ে আপনাদের সহযোগিতা করবে । চাইলে আপনারাও একে অপরের প্রশ্নের উত্তর দিয়ে সহযোগিতা করতে পারেন ।

Ask A Question

Our Statistics

  • Questions 2k
  • Answers 879
  • Users 113
  • 0
হোসাইন আলী
Enlightened

ধনী হওয়ার উপায় কী ?

Related Questions

You must login to add an answer.

1 Answer

  1. ধনী হতে কে না চায়? কিন্তু সবাই কী ধনী হতে পারে? অনেকের তো অনেক বেশি ইনকাম থাকা সত্বেও ধনী হতে পারে না। আয়ের থেকে ব্যয় অনেক বেশি করার কারণে।   পৃথিবীর অধিকাংশ সম্পদ গচ্ছিত আছে শুধুমাত্র ২০০ ব্যক্তির দখলে। শুধুমাত্র বিল গেটসের প্রতি বছর করা দানের পরিমাণ বাংলাদেশের এক বছরের মোট বাজেটের চেয়ে বেশি।Read more

    ধনী হতে কে না চায়? কিন্তু সবাই কী ধনী হতে পারে? অনেকের তো অনেক বেশি ইনকাম থাকা সত্বেও ধনী হতে পারে না। আয়ের থেকে ব্যয় অনেক বেশি করার কারণে।

     

    পৃথিবীর অধিকাংশ সম্পদ গচ্ছিত আছে শুধুমাত্র ২০০ ব্যক্তির দখলে। শুধুমাত্র বিল গেটসের প্রতি বছর করা দানের পরিমাণ বাংলাদেশের এক বছরের মোট বাজেটের চেয়ে বেশি। সবাই তার মতো ধনী হতে না পারলেও অন্তত সমাজে স্ট্যাটাস বজায় রাখার মতো ধনী তো আপনি হতেই পারেন, যদি আয়ত্বে আনতে পারেন কিছু অভ্যাস।

     

    কী সেই অভ্যাস, চলুন জেনে আসি- মূলত ধনী হওয়া হচ্ছে মনের একটি অবস্থা। আপনি বিভিন্ন উপায়ে ধনী কে সংজ্ঞায়িত করতে পারেন। যারা শুধুমাত্র অনেক টাকার অধিকারী হওয়া কে ধনী বলে মনে করেন। তাদের কাছে ধনী হওয়া একজন কোটিপতি হওয়ার সমতুল্য। কিন্তু ধোনিকে মনস্তাত্ত্বিক সমৃদ্ধির সাথে তুলনা করা যায়। ধনী হওয়ার জন্য আপনাকে অবস্তা একটি দুর্গের মালিক হতে হবে না। আপনার মাঝে যদি অর্থের দুশ্চিন্তা না থাকে তাহলে আপনাকেও ধনী ব্যক্তি বলা যেতে পারে।

     

    হওয়াকে আপনি কোন সংজ্ঞায় সংজ্ঞায়িত করবেন তা আপনার পছন্দ। কিন্তু কিভাবে ধনী হওয়া যায় তার কিছু উপায় নিচে দেয়া হল।

    ধনী হওয়া হচ্ছে একটি উচ্চাভিলাষী লক্ষ্য এবং আপনি যদি লক্ষ্যে থাকেন তবে ধনী হওয়ার সহজ উপায় গুলো ভালভাবে পড়ুন

     

    নিজেই নিজের বিশেষজ্ঞ হিসেবে আপনার দক্ষতাকে কাজে লাগান এবং এতে বিনিয়োগ করুন:

    কোন একটি বিষয়ে সবচেয়ে ভালো করাকে আপনার লক্ষ্য হিসেবে নেন। এটি নিয়ে কাজ করুন প্রয়োজনে প্রশিক্ষণ নিন শিখুন অনুশীলন করুন এবং নিজের মূল্যায়ন করুন এবং পরিমার্জন করুন।

    লক্ষ্য করলে দেখতে পাবেন যে , অধিকাংশ খেলোয়াড় কিংবা বিনোদনকারীরা কোটিপতি এবং এর অন্যতম কারণ হলো তাদের দক্ষতাকে তারা পুরোপুরি ব্যবহার করেছে। যদি এমন কিছু থাকে যা আপনি ভালো পারেন, তাহলে এটি থেকে আপনি যথেষ্ট আয় করতে পারেন, যা আপনাকে ধনী হতে সহযোগিতা করবে।

     

    আপনার সময়, শক্তি এবং অর্থ বিনিয়োগ করুন:
    সফল ব্যক্তিরা নিজেদের উন্নতির জন্য সময়, শক্তি এবং অর্থ বিনিয়োগ করেন। এবং এটি আপনার বিনিয়োগ করা বিনিয়োগের মধ্যে সবচেয়ে ফলপ্রসূ হতে পারে। প্রথমে আপনি কি কি দক্ষতা অর্জন করতে চান তা বের করুন এবং সেই একটি বিষয় বিশ্বের দশটি সেরা ব্যক্তির একটি তালিকা তৈরি করুন এবং মানদণ্ড নির্ধারণ করতে এবং সেরা হওয়ার দিকে আপনার নিজের অগ্রগতিকে ট্রাক করতে উক্ত তালিকাটি ব্যবহার করুন।

    উদাহরণস্বরূপ আপনি যদি একজন লেখক হন তাহলে সেরা দশজন লেখককে বের করুন এবং তাদের লেখা সম্পর্কে জানুন এবং তারা সফল হওয়ার জন্য কি করেছিলেন তা দেখুন।

     

    সঞ্চয় করতে থাকুন:
    সবাই দ্রুত ধনী হতে চায় কিন্তু এটি এমন কোনো কিছু নয় যা আপনি অল্প সময়ের মধ্যে সহজে অর্জন করতে পারবেন। কিভাবে দ্রুত ধনী হওয়া যায় তা নিয়ে চিন্তা না করে যা দিয়ে আপনি ধনী হবেন তা অর্জন করার চেষ্টা করুন অর্থাৎ বিনিয়োগ করার জন্য সঞ্চয় করতে থাকুন। আপনার আজকের একটি ক্ষুদ্র সঞ্চয় তিন থেকে পাঁচ বছর পর অনেক বড় একটি মূলধন হিসেবে দেখা দেবে যা বিনিয়োগ করে আপনি ধনী হতে পারবেন।

     
    ট্রেন্ডিং পণ্য উৎপাদন করুন :
    দ্রুত ধনী হওয়ার চিন্তা বন্ধ করে কিভাবে বহুলোকের সেবা দেয়া যায় তা ভাবতে শুরু করুন। খুঁজে বের করুন আপনার আশেপাশের লোকদেরকে প্রয়োজন বা এমন জিনিস যা সমাজকে উন্নত করতে পারে। আপনি যদি তা খুঁজে বের করতে পারেন তাহলে ভবিষ্যতে একটি ট্রেন্ডিং পণ্য উৎপাদন করতে সক্ষম হবেন আপনাকে অতি দ্রুত ধনী হতে সাহায্য করবে।

     

    স্টার্ট-আপ কোম্পানিতে যোগ দেন এবং শেয়ার কিনুন:
    স্টার্টআপ কোম্পানিগুলো শুরুতে বেশ ভালই প্রফিট করতে থাকে এবং দেখা যায় অনেক স্টার্টআপ কোম্পানি কিছুদিন পর বড় কোন কোম্পানির কাছে তাদের কোম্পানিকে বিক্রি করে দেয় বেশ বড় এমাউন্ট এর বিনিময়ে। কাজেই আপনি যদি কোনো স্টার্ট-আপ কোম্পানিতে বিনিয়োগ করতে পারেন তাহলে তা থেকে খুব দ্রুত একটি বড় মুনাফা অর্জন করতে পারেন।

     

    জমি ক্রয়-বিক্রয় করুন :
    ধনী হওয়ার জন্য আপনি চাইলে জমি ক্রয় বিক্রয়ের ব্যবসা করতে পারেন। ধার পদ্ধতি এই ধরণের ব্যবহার একটি মূল উপাদান হতে পারে। আপনার যদি ফেস ভ্যালু ভালো থাকে তবে তা কাজে লাগিয়ে আপনি মানুষের কাছে বেশ কিছু অর্থ ধার নিতে পারেন এবং নিজের থাকা অল্পকিছু অর্থ একত্রে বিনিয়োগ করে জমিজমা কিনতে পারেন। একটি নির্দিষ্ট সময় পর দেখা যাবে 50 থেকে 60 পার্সেন্ট লাভে আপনি জমিটি বিক্রি করতে পারবেন এবং সেখান থেকে ধার পরিশোধ করতে পারবেন। দেখা যাবে আপনার সম্পত্তির মূল্য প্রায় 60 ভাগ বেড়ে যাবে এবং আপনার নিজের অর্থ বেড়ে হবে চার গুণ। তবে এই ব্যবসার জন্য আপনাকে সঠিক এলাকায় সঠিক বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী জমি নির্বাচন করতে হবে এবং সেগুলো কে বুদ্ধিমান সাথে কাজে লাগাতে হবে।

     
    আয় বুঝে ব্যয় করুন :
    কিছু লোকের ধনী হওয়ার জন্য সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে তারা সব সময়ই যা উপার্জন করে তার থেকে বেশি খরচ করে। আপনাকে আপনার আয় বুঝে ব্যয় করার চেষ্টা করতে হবে। খেয়াল রাখবেন আপনার আইডি থেকে ব্যয় যেন কোনোভাবেই বেশি না হয়। আপনার জীবনের অপ্রয়োজনীয়’ যেসব খরচ আছে তা চিহ্নিত করুন এবং সেই খরচগুলো কমাতে আপনি যা করতে পারবেন তা নিশ্চিত করুন। শুধুমাত্র যে জিনিস গুলো খুবই প্রয়োজনীয় সেগুলো কে প্রকাশ করুন এবং খুব শীঘ্রই আপনারা সঞ্চয় করতে পারবেন। আগে যা করেছিলেন তার থেকে অনেক বেশি।

     

    চিন্তা ভাবনা করে বিনিয়োগ করুন:
    একটি ভুল বিনিয়োগ আপনার সম্পদের একটি বড় অংশ কেড়ে নিতে পারে। বিনিয়োগের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে আরো কয়েকবার চিন্তা করে নিশ্চিত হউন। সম্ভব হলে পেশাদার এবং বিশেষজ্ঞদের মতামত নিন।

     

     

    ভাগ্যের উপর অবশ্যই বিশ্বাস রাখুন। ভাগ্যের ভরসায় বসে থাকবেন না। আপনি কাজ করতে থাকুন ইনশাআল্লাহ ভাগ্য আপনার সহায় হবেই।

     

    তবে সৎ পরামর্শ থাকবে সম্পদ সঞ্চয় করার চেয়ে জীবনে আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ জিনিস আছে। আপনি নিশ্চয়ই এমন কোন ধনী হতে চান না যা আপনাকে অপ্রীতিকর ঘটনার জন্ম দেয় এবং শেষ বয়সে একাকী জীবন যাপন করতে হয় এবং যার কারণে আপনি নিজের স্বাস্থ্য হারান। যদি আপনি একটি ভারসাম্যপূর্ণ জীবন উপভোগ করতে পারেন এবং একই সাথে ধনী হতে পারেন তবে কেন তা আপনি করবেন না?

    See less